[english_date], [bangla_date]

অবশেষে পানিতে ‘রাজা লুই’ বুড়ো চিংড়ি!

Friday, 02/12/2016 @ 3:41 am

নিউজ ডেস্ক : আরেকটুর জন্য ভোজনরসিকদের পেটে যেতে চলা একশো বছরের বুড়ো একটি চিংড়িকে পানিতে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। তেইশ পাউন্ডের বিশাল এই গলদা চিংড়িটিকে কিনে নেন একজন হৃদয়বান নিরামিষভোজি। ক্যাটি ককলিন নামে সেই নিরামিষভোজি চিংড়িটিকে এরপর পানিতে ছেড়ে দেন।
রাজা লুই বা ‘কিং লুই’ নামকরণ করা হয় তার দানবীয় আকৃতির জন্য। তেইশ পাউন্ডের এই গলদা চিংড়িটি চিংড়ি মহলে দানব আকৃতির বলেই জায়গা পাবে।
অক্টোবরে একটি ঘূর্ণিঝড়ে এই বিশাল গলদা চিংড়িটি ধরেছিলেন এক জেলে। চিংড়িটি প্রথম কিনে নিয়েছিল ‘আলমা লবস্টার শপ’ নামে একটি কানাডার একটি চিংড়ির দোকান। তাদের ফেসবুক পেজে রাজা লুইকে নিয়ে বেশ কয়েকটি পোস্ট দেওয়া হয়। সেখানেই রাজা লুইকে দেখেন ক্যাটি ও তার দাদা। কানাডার সংবাদমাধ্যম সিবিসি’র সাথে সাক্ষাতকারে ক্যাটি ককলিন জানান তার দাদা রাজা লুইকে দেখে এর ভবিষ্যত পরিণতি নিয়ে তার সাথে কথা বলেন।
‘সে বয়সে আমার চেয়ে চারগুণ বড়, তার এমন পরিণতি হতে পারে না’ বলেন ক্যাটি ককলিন।
তারপর আলমা লবস্টার শপ থেকে কিনে নেন ‘রাজা লুই’কে! এর জন্য তাকে দিতে হয় ২৩০ কানাডিয়ান ডলার। বাংলাদেশী টাকায় যার মূল্য দাড়ায় প্রায় ১৩,৫১১ টাকা। রাজা লুইকে তারপর জাহাজে করে ফুন্ডি উপসাগরে ছেড়ে দেওয়া হয়।
এতবড় চিংড়ি দেখে চিংড়ির ভোজনরসিকদের জিহ্বাতে পানি চলে আসলেও কিছু করার নেই। কারণ প্রাণের প্রতি মায়ার জয় হয়েছে।
সূত্র: সিবিসি, টেলিগ্রাফ