[english_date], [bangla_date]

হাইটেক সিটিতে ৭ম বৃহৎ ডাটা সেন্টার

Tuesday, 18/04/2017 @ 4:37 am

নিউজ ডেস্ক: তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, ক্লাউড কম্পিউটিং ও জি ক্লাউড প্রযুক্তিতে বিশ্বের ৭ম বৃহৎ ডাটা সেন্টার নির্মাণ করা হচ্ছে বাংলাদেশে। যার ব্যয় হচ্ছে ১৯৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। ইতোমধ্যে ৫০ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। চায়নার আর্থিক ও কারিগরী সহযোগিতায় নির্মাণাধীন এই ডাটা সেন্টারে দেশ-বিদেশের গুরুত্বপূর্ণ ডাটা সংরক্ষিত থাকবে। আগামী ৩১ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে এটি নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হবে।
সোমবার রাত ৮টার দিকে গাজীপুরের কালিয়াকৈরের বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে নির্মাণাধীন ‘ফোর টায়ার জাতীয় ডাটা সেন্টারের অগ্রগতি পরিদর্শন করতে এসে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০২১ সাল নাগাদ হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার ও সেবা খাতে ৫ বিলিয়ন ডলারের আইসিটি রপ্তানী অর্জন করার লক্ষ্যমাত্রা এবং এই সেক্টরে আগামী ৫ বছরে ২০ লক্ষাধিক মানুষের কর্মসংস্থানের যে টার্গেট এতে কালিয়াকৈরের বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।
তথ্য প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে ইতোমধ্যে আইসিটি সম্পর্কিত ব্যবসা শুরু করতে ১০ থেকে ১৫টি কোম্পানি চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। ২০১৭ সালের মধ্যে ট্রেন স্টেশন চালু হলে এখানে কয়েক শত কোম্পানি বিনিয়োগ করবে। আগামী ১০ বছরের মধ্যে এই পার্কটি পুরোদমে কাজ শুরু করবে।
এর আগে মন্ত্রী পার্কের প্রশাসনিক ভবনে সভাকক্ষে ডাটা সেন্টার নির্মাণের সঙ্গে জড়িত চায়না ও বাংলাদেশের কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করেন। সেখানে প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনা প্রদান করেন। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান আহমেদ এমপি।

ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যেন বড়াইবাড়ীর ইতিহাস জানতে পারে এ জন্যে এখানে একটি স্মৃতি সৌধ স্থাপন করা হয়েছে। এই স্মৃতি সৌধে এলাকাবাসী, বিজিবিসহ বিভিন্ন সংগঠন পুষ্পার্ঘ অর্পণ করে শহীদদের শ্রদ্ধা জানাবে।