[english_date], [bangla_date]

দু’শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন খুলনায়

Saturday, 15/07/2017 @ 7:58 am

নিউজ ডেস্ক : খুলনার পাইকগাছা উপজেলায় দু’শিশুকে গাছে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। হাঁস চুরির অভিযোগে শাহিনুর রহমান জুম্মন সরদার ও হাসান নামের ওই শিশুকে কয়েক ঘণ্টা গাছে বেঁধে রেখে নির্যাতন করা হয়।
শুক্রবার এ ঘটনা প্রকাশ পেলে উপজেলাজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়।
তবে স্থানীয় থানা পুলিশ এ বিষয়ে কিছুই জানে না বলে দাবি করেছে।
অভিযোগে জানা গেছে, শুক্রবার দুপুরের দিকে খেলা শেষে উপজেলার বান্দিকাটি গ্রামের হাবিল সরদারের ছেলে ও মানিকতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র জুম্মন সরদার, গোপালপুর গ্রামের কছিমউদ্দীন মোড়লের ছেলে ও মঠবাটী মাদরাসার পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র হাসান এবং তাদের সহপাঠী জাহিদুল স্থানীয় বোয়ালিয়া বীজ উৎপাদন খামারের ভেতর থেকে হাঁস ধরে বিক্রি করতে নিয়ে যায়।
এ ঘটনা টের পেয়ে হাঁসের মালিক স্থানীয় পুরাইকাটি গ্রামের ব্যবসায়ী ছবেদ আলীর ছেলে শাহিনুর রহমান শিশু জুম্মন ও হাসানকে ধরে এনে তার বাড়ির আম গাছের সাথে রশি দিয়ে বেঁধে মারপিট করেন বলে অভিযোগ করেন জুম্মনের মা পারভীন বেগম।
তবে কয়েক ঘণ্টা বেঁধে রাখার পর সন্ধ্যায় স্থানীয় লোকজন তার বাড়িতে জড়ো হলে তখন দুই শিশুকে তাদের অভিভাবকের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে শাহিনুর রহমান বলেন, ‘আমি রাগের বশে দুই শিশুকে কিছু সময়ের জন্য গাছের সাথে বেঁধে রাখি। পরে আমি ভুল বুঝতে পেরে তাদেরকে ছেড়ে দেই’।
এ ব্যাপারে পাইকগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আমিনুল ইসলাম বিপ্লব শনিবার দুপুরে এ প্রতিবেদককে বলেন, এ ধরনের কোনো অভিযোগ নিয়ে থানায় কেউ আসেনি। আসলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া এ ধরনের কোনো ঘটনা তার জানা নেই। তিনি খোঁজ নিয়ে দেখবেন বলে জানান ওসি।