আমার মা-ই তো একজন নারী,আমি কীভাবে নারী বিদ্বেষী হতে পারি

tanzim shakib

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আলোচনায় জাতীয় দলের পেসার তানজিম হাসান সাকিবের কয়েকটি ফেসবুক পোস্ট। সর্বশেষ এশিয়া কাপের শেষ ম্যাচে ভারতের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় তার।

এরপর এই ক্রিকেটারের পুরোনো কিছু পোস্ট সামনে আসে। 

যেখানে নারীদের চাকরি করা, বাংলাদেশের বিজয় দিবসসহ নানা বিষয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন তিনি। ভিন্ন সম্প্রদায়ের প্রতিও তার বিদ্বেষের কথা ফুটে উঠে। এ নিয়ে বিসিবি তলব করলে তাদের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন পেসার তানজিম সাকিব। তার বিরুদ্ধে নারীবিদ্বেষী হওয়ার অভিযোগ করেছেন অনেকে। এ বিষয়টিও অস্বীকার করেছেন সাকিব।

এ নিয়ে বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস মঙ্গলবার মিরপুরে সাংবাদিকদের বলেন, ‘একটা কথা এসেছে নারীদের ব্যাপারে। নারীদের ব্যাপারে যেসব পোস্ট ছিল, সে বলেছে আমি এটার দায়-দায়িত্ব নিচ্ছি। আমি নারীবিদ্বেষী নই। এই দাবি পুরোপুরি উড়িয়ে দিয়েছে। সে বলেছে আমার মা একজন নারী। আমি কোনো দিনও নারীবিদ্বেষী হতে পারি না। এটা হচ্ছে তার বক্তব্য। আমরা তাকে সতর্ক থাকার জন্য বলেছি। ভবিষ্যতে যদি কোনো পোস্ট দিয়ে থাকে সেটা বোর্ড থেকে মনিটর করা হবে। 

তানজিম সাকিবের অনেক বক্তব্য বর্ণবাদী হওয়ার অভিযোগ করছেন অনেকে। এ ব্যাপারে ক্রিকেট বিশ্বে শাস্তি পাওয়ার নজিরও আছে। কিন্তু তাকে শুধু সতর্ক করার বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয় ক্রিকেট অপারেশন্স চেয়ারম্যানের কাছে। তিনি বলছেন, বয়সে তরুণ সাকিব ভবিষ্যতে এমন করবেন না। 

জালাল বলেন, সে বলেছে আমি দুঃখিত। আমরা সতর্ক করেছি ভবিষ্যতে যেন এমন পোস্ট না দেওয়া হয়। সে বলেছে এ ধরনের পোস্ট থেকে বিরত থাকবে। সে যেহেতু ভুল স্বীকার করেছে। সে একটা বড় কথা বলেছে- সে নারী বিদ্বেষী নয়। সে বলেছে আমার মা-ই তো একজন নারী। আমি কীভাবে নারী বিদ্বেষী হতে পারি। 

আরও পড়ুনঃ হারের পর ভারতের কাছে কৃতজ্ঞ পাকিস্তানঅবশ্যই এটা আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। এদিকে আমাদের নজর আছে। আমরা তাকে পর্যবেক্ষণ করব। তার পরিবারও এ ব্যাপারে খুবই শঙ্কিত। এমন পরিস্থিতি তারাও আশা করেনি। তারাও দুঃখিত। সামনে বিশ্বকাপ আছে, সে তরুণ ছেলে, বয়স কম। এজন্য তাকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে যেন ওরকম কিছু যদি থাকে তাহলে আমরা পর্যবেক্ষণ করে, যদি ওরকম থাকে তাহলে আমরা অবশ্যই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবো। 

তানজিম সাকিবের জন্য মানসিক সাহায্য দরকার হলে বিসিবি পাশে থাকবে বলেও জানান জালাল। দরকার হলে তাকে নিয়ে যাওয়া হবে মনোবিদদের কাছেও। অন্য কোনো ক্রিকেটারের ক্ষেত্রেই এমন সমস্যা দেখেন না জালাল। তিনি বলেন, ‘যদি ওরকম কোনো সমস্যা থাকে, তাহলে ওই সহায়তাও করবো (মানসিক)। 

আমরা তাকে মনিটর করবো। তার কোনো সাহায্য লাগলে আমরা অবশ্যই প্রদান করবো। এটা সব ক্রিকেটারের বেলায় বলছি। কিন্তু অন্য ক্রিকেটারের বেলায় সমস্যা দেখছি না। যেহেতু এটা পাবলিকলি এসেছে তানজিম সাকিবের ব্যাপার।

আমরা তার ইস্যুটাই এড্রেস করছি। আশা করি ভবিষ্যতে এ ধরনের কোনো সমস্যা হওয়ার কথা না। তাদের একটা কন্ট্রাক্ট আছে। ন্যাশনাল টিমের প্লেয়ারদের কোড অব কন্টাক্টের ব্যাপার আছে। এগুলো তাকে অবগত করা হয়েছে। এজন্য ও বলেছে আরও সতর্ক থাকবো। যেটা আগে বলেছি, ও রিগ্রেট করেছে। 


কমেন্ট As:

কমেন্ট (0)