ঢাকাবিশেষ প্রতিবেদনসারাদেশ

কটিয়াদীতে নিজ উদ্যোগে সচেতন ও মাস্ক বিতরন করছেন নৈশ্য প্রহরী আঃ কাদির

কটিয়াদী(কিশোরগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ গায়ে নিজ টাকা কিনা নীল রঙ্গের পিপি পোশাক,মুখে মাস্ক,মাথায় পাথলা টুপি,এক হাতে মাইক,আরেক হাতে লিফলেট নিয়ে দু বছর ধরে কটিয়াদী উপজেলার পাড়া মহল্লার মানুষকে নিজ উদ্যোগে সচেতন ও মাস্ক বিতরন করে যাচ্চেন কটিয়াদী উপজেলা সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের নৈশ প্রহরী আঃ কাদির।তিনি সকাল-বিকাল নিজের টাকা হ্যান্ড মাইক কিনে প্রচার দিয়ে যাচ্ছেন।একজন নৈশ্য প্রহরীর ব্যতিক্রমি উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাচ্ছেন এলাকার সকল শ্রেনী পেশার মানুষ।

জানা যায়,আঃ কাদিরের বয়স ৫০ উর্ধ্ব।তার ১ ছেলে ১ মেয়ে।তিনি কটিয়াদী উপজেলা সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের একজন নৈশ প্রহরী।অত্যন্ত স্বল্প বেতনে চাকুরী করে তাহার পরিবার পরিজন নিয়ে সংসার পরিচালনা করা খুবই কষ্টসাধ্য।তারপরও দেশের এবং দেশের মানুষের প্রতি অনেক মায়া রেখে নিজে খেয়ে না খেয়ে সকাল সন্ধ্যা মানুষকে তার নিজ মাইকে প্রচারের মাধ্যমে ঘরে থাকা,মাক্স ব্যবহার করা,দুরত্ব বজায় রাখা,সাবান দিয়ে হাত ধোয়া ইত্যাদি বিষয়ে ভোর ৬ থেকে সকাল ০৯টা পর্যন্ত এবং বিকাল ৪ টা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত কটিয়াদী উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল,কটিয়াদী বাসষ্ট্যান্ড,কটিয়াদী পশ্চিম ও পুর্ব পাড়া,ঝাকালিয়া বাজার,জালালপুর, বেতাল,আচমিতা বাজার সহ বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ন স্থাপনায়,পাড়া মহল্লায় নারী পুরুষসহ সকল শ্রেনীর মানুষকে উপদেশ মুলক এই প্রচারাভিযান দিয়ে যাচ্চেন।সরকারী দায়িত্ব পালনের পর যতটুকু সময় পাই সেই সময় টুকু বাসায় না কাটিয়ে মানুষকে সচেতন করার লক্ষ্যে হ্যান্ড মাইক নিয়ে বেড়িয়ে পড়েন।পায়ে হেটে যতটুকু পারেন ততটুকু মানুষকে সচেতন করছেন এবং প্রচার অব্যাহত রেখেছেন।তার সচেতনা মানুষকে আরো আকৃষ্ট করেছে।

আঃ কাদির বলেন,আমি সরকারী দায়িত্ব পালনের পর যতটুকু সময় পাই সেই সময় টুকু বাসায় না কাটিয়ে মানুষকে সচেতন করে থাকি।এ দেশের মানুষ সুস্থ্য থাকলে সবাই সুস্থ্য থাকবে।দরকার একটু সচেতনতা।মানুষ সতেচন হলেই করোনা বিদায় নিবে।আরো বলেন,আমি পায়ে হেটে যতটুকু পারি মানুষকে সচেতন করে যাচ্ছি।আমাকে সরকারী ভাবে কোন কিছু দেয়া হয়নি।সরকারী ভাবে কোন কিছু পেলে আমি আরো দ্রুত মানুষকে ঘরে থাকার বিষয়ে সচেতন করতে পারতাম।যতদিন এই মহামারী থাকবে ততদিন তিনি তার প্রচার চালিয়ে যাবেন বলে জানান।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার জ্যোতিশ^র পাল বলেন,নিজ উদ্যোগে মানুষকে করোনার সংক্রমনে রোধে সচেতনতার জন্য যে প্রচারনা চালাচ্ছেন তা প্রশংসনীয় ও সাধুবাদ জানাই।

এই জাতীয় আরো খবর

Back to top button