বুধবার, ২৭ মে, ২০২০

করোনার থাবা পড়েছে অ্যাপলের উপর!

চলতি ত্রৈমাসিকে ৬৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি রাজস্ব আদায়ের পূর্বাভাস দিয়েছিল টেক জায়ান্ট অ্যাপল।

তবে সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানটি বলেছে, চলমান ত্রৈমাসিকে তারা যে রাজস্ব আদায়ের যে স্বপ্ন দেখেছিলেন, তা পূরণ হচ্ছে না। চীনে করোনাভাইরাসের কারণে তাদের রাজস্ব আয় কমে গেছে।

মার্কিন এই প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে চীনে অনেক কারখানা বন্ধ হয়ে গেছে।

আর যেগুলো চালু হয়েছে সেগুলোতে প্রত্যাশামাফিক উৎপাদন হচ্ছে না। ফলে বিশ্বজুড়ে আইফোনের সরবরাহ সাময়িকভাবে কমে যেতে পারে।

এক বিবৃতিতে অ্যাপল জানিয়েছে, চীনে অধিকাংশ কারখানা বন্ধ হয়ে গেছে। যেগুলো কম সময়ের জন্য চালু থাকছে। ফলে আইফোন উৎপাদন ও বিক্রিতে প্রভাব পড়েছে। এ কারণে বিশ্বজুড়ে আইফোনের সরবরাহ সাময়িকভাবে বাধাগ্রস্ত হবে।

উৎপাদন কমে যাওয়ায় রাজস্ব আদায়ে প্রভাব পড়েছে অ্যাপলের। প্রত্যাশামাফিক রাজস্ব আদায় হচ্ছে না জানিয়ে কোম্পানিটি বলেছে, ‘আমরা মার্চ প্রান্তিকে যে পরিমাণ রাজস্ব আদায়ের আশা করেছিলাম তা হচ্ছে না। আমরা স্বাভাবিক সময়ের তুলনায় কম রাজস্ব পাচ্ছি।’

অ্যাপলের আইফোন উৎপাদনের বড় পার্টনার চীন। গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর সেখানকার সব কারখানা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ বিশ্বের প্রথম হাইড্রোজেন ইয়টের মালিক হচ্ছে বিল গেটস

প্রদেশটির বাইরে যেসব কারখানা রয়েছে অ্যাপলের তা ধীরে ধীরে খুলছে। আর কারখানা খুললেও কর্মঘণ্টা কমিয়ে দেয়া হয়েছে। এতে করে প্রত্যাশামাফিক পণ্য উৎপাদন করতে পারছে না প্রতিষ্ঠানটি।

অ্যাপল বলেছে, ‘তবে আমরা ধীরে ধীরে খুচরা বিক্রির দোকানগুলো খুলে দিচ্ছি এবং এটি অব্যাহত থাকবে। আর আমরা এগুলো করব যথেষ্ট সতর্কতার সঙ্গে।’

বিশ্বে স্মার্টফোনের সবচেয়ে বড় বাজার চীন। তবে বিশ্লেষকরা বলছেন, করোনাভাইরাসের কারণে চীনে প্রথম প্রান্তিকে স্মার্টফোনের চাহিদা কমে অর্ধেকে নেমে আসতে পারে।

‘গত কয়েক সপ্তাহজুড়ে আমরা যখন আইফোনের ওপর করোনাভাইরাসের প্রভাব নিয়ে আলোচনা করেছি, তখন আমরা লক্ষ্য করলাম এর বড় প্রভাব পড়েছে রাজস্ব আদায়ের ওপরে।

ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝিতে আশঙ্কার চেয়েও আরও কম রাজস্ব আদায় হয়েছে।’ কথাগুলো বলেছেন লস অ্যাঞ্জেলস ভিত্তিক বেসরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান ওয়েডবুশের বিশ্লেষক ড্যানিয়েল ইভস। ক্লায়েন্টদের উদ্দেশে লেখা এক নোটে এই বিশ্লেষক এসব কথা বলেন।

যদিও ধীরে ধীরে কারখানা ও বিক্রির দোকানগুলো স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে যাচ্ছে, অ্যাপল সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, চীনা অর্থনীতির ওপর মারাত্মক প্রভাব ফেলবে করোনাভাইরাস।

সূত্র: বিবিসি

 

0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *