বিপর্যয় থেকে বেরোতে পারেনি টাইগাররা,১৮৮ রানে অলআউট

taijul

বাংলাদেশের বিপক্ষে সিলেট টেস্টের প্রথম ইনিংসে ২৮০ রান করে অলআউট হয়েছিল শ্রীলংকা। এর পর ব্যাট করতে নেমে শুক্রবার বিকালেই ৩ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়েছিল টাইগাররা।

আজও সেই বিপর্যয় থেকে বেরোতে পারেনি স্বাগতিকরা। তবে বিপর্যয়ের মুখে একাই প্রতিরোধ গড়েছিলেন তাইজুল ইসলাম। তার ৪৭ রানের ইনিংস এবং শেষদিকে দুই পেসার খালেদ আহমেদ এবং শরিফুল ইসলামের ৪০ রানের জুটিতেই শেষ পর্যন্ত অলআউট হওয়ার আগে ১৮৮ রান সংগ্রহ করেছে নাজমুল শান্তর দল, লঙ্কানদের চেয়ে ৯২ রানে পিছিয়ে থেকেই প্রথম ইনিংস শেষ করেছে টাইগাররা।

৩ উইকেট হারানোর পর গতকাল শেষবেলায় ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয়ের সঙ্গী হয়েছিলেন তাইজুল ইসলাম। এ দুজন মিলেই আজ দ্বিতীয় দিনের সূচনা করেছেন। তবে ইনিংস বড় করতে পারেননি জয়। আজ দ্বিতীয় দিনে স্কোরবোর্ডে ২১ রান যোগ হতেই বিদায় নিয়েছেন জয়। কুমারার বলে ডি সিলভার মুঠোবন্দী হয়ে ফিরতে হয়েছে তাকে। সাজঘরে ফেরার আগে ৪৬ বলে ১২ রান করেন তিনি।

এদিকে জয় ফেরার পর ক্রিজে তাইজুলের সঙ্গি হয়েছেন শাদাত হোসেন দিপু। তবে তিনিও আজ চাপের মুখে দলের হাল ধরতে পারেননি। ৩০ রানের জুটি গ্রলেও বিদায় নিয়েছেন ব্যক্তিগত ১৮ রানে।

আরও পড়ুনঃ ২৩৫ রানে অলআউট শ্রীলংকা

এদিকে দিপুর পর ক্রিজে আসেন লিটন দাস। তাইজুল ইসলামের সঙ্গে লংকান বোলারদের ভালোই সামলেছেন তিনি। তবে ৪১ রানের জুটি গড়ে তিনিও ফিরেছেন কুমারার দুর্দান্ত ডেলিভারিতে বোল্ড হয়ে। এদিকে এক প্রান্তে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারালেও অপরপ্রান্তে বিপর্যয় মোকাবেলা করছেন তাইজুল।

প্রতিকূলতার মুখে দাঁড়িয়ে লংকান বোলারদের সামলে দায়িত্বশীল এক ইনিংস খেলেছেন তিনি। তার প্রতিরোধেই ৬ উইকেটে ১৩২ রান নিয়ে মধ্যাহ্নবিরতিতে যায় বাংলাদেশ। তবে বিরতি থেকে ফেরার পর আর টিকে থাকতে পারেননি ফিফটির পথে থাকা এই টাইগার স্পিনার। কাসুন রাজিথার বলে মেন্ডিসের মুঠোবন্দি হয়ে ব্যক্তিগত ৪৭ রানে সাজঘরে ফিরেন তিনি।

তাইজুল ফেরার পর শেষদিকে ৪০ রানের জুটি গড়েছিলেন দুই পেসার শরিফুল ইসলাম এবং খালেদ আহমেদ। এ দুজনের জুটিতেই অলআউট হওয়ার আগে ১৮৮ রানের সংগ্রহ গড়তে সক্ষম হয় বাংলাদেশ। লংকানদের হয়ে সর্বোচ্চ ৪টি করে উইকেট নিয়েছেন বিশ্ব ফার্নান্দো। এদিকে টাইগাররা অল আউট হওয়ায় এখন ৯২ রানের লিদ নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করবে শ্রীলংকা। 


কমেন্ট As:

কমেন্ট (0)