বৃহস্পতিবার, ১৬ জুলাই, ২০২০

বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ,স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা

রাজশাহীর পুঠিয়াতে বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে ধর্ষণের শিকার হওয়া এক স্কুলছাত্রী আত্মহত্যা করেছে। গতকাল বুধবার রাতে ওই স্কুলছাত্রী রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

সে চারঘাটের মাড়িয়া গ্রামের মারিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিলেন। ধর্ষক জামিরুল ইসলাম জয় পুঠিয়ার বানেশ্বরের বালিয়াঘাট এলাকার আসলাম উদ্দিনের ছেলে।

জানা গেছে, গত ১৬ ফেব্রুয়ারি বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে জয় বানেশ্বরের একটি বাড়িতে নিয়ে ধর্ষণ করে ওই স্কুলছাত্রীকে। ধর্ষণের পর স্কুলছাত্রীটি জয়কে বিয়ের জন্য চাপ দেয়। কিন্তু লম্পট জয় এতে অস্বীকার করে মেয়েটি ফিরিয়ে দেয়।

বাড়ি ফেরার সময় রাগে-ক্ষোভে বানেশ্বর থেকেই এক বোতল কীটনাশক কিনে নিয়ে বাড়িতে চলে যায় ওই স্কুলছাত্রী। এরপর ওইদিন বিকালেই সে আত্মহত্যা করতে বিষ পান করে।

আরও পড়ুনঃ চাকরির কথা বলে পাহারা বসিয়ে নারীকে ধর্ষণ

পরে পরিবারের লোকজন টের পেয়ে মেয়েটিকে দ্রুত রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে। কিন্তু সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বুধবার রাতে সে মারা যায়।

রাজশাহীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইফতেখায়ের আলম জানান, ঘটনাটি জানার পরে পুলিশ পাঠানো হয়েছে এলাকায়। ধর্ষক জয়কে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ভিন্ন খবর