রায়পুরে মিনি পিকআপ চোর চক্রের দুই সদস্য গ্রেপ্তার

রায়পুরে মিনি-পিকআপ চোর চক্রের দুই সদস্য গ্রেপ্তার

Generic placeholder image
  

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে মিনিপিকআপ চোর চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৯ জুলাই) উপজেলার মধ্য কেরোয়া থেকে একটি পিকআপ গাড়ি চুরি করে চাঁদপুর সদর থানার মহামায়া বাজার এলাকায় চলে যায় এক চোর। তারেক নামে এক মালিকের মিনি পিকআপ গাড়িটির ড্রাইভারের অনুপস্থিতিতে ভোর তিনটা নাগাদ এই চুরির ঘটনা ঘটে। জানা যায়, জিয়াউল হক নামে মধ্য কেরোয়ার এক বাসিন্দার বাসার সামনে প্রতিদিন গাড়িটি রাখতো ড্রাইভার মুতাছির মাহমুদ। ঘটনার রাতে গাড়িটিকে সেখানে না দেখতে পেয়ে মোঃ আলী নামে স্থানীয় এক বাসিন্দা ড্রাইভার মুতাছিরকে ফোন করে। পরে গাড়ির চাকার দাগ অনুসরণ করে স্থানীয় পানাপাড়া বাজার এলাকায় গিয়ে মুতাছির নাইট গার্ডদের মাধ্যমে জানতে পেরে চাঁদপুর সদর থানার মহামায়া বাজারে যায়।


তখন বাজারটিতে ড্রাইভার মুতাছিরের উপস্থিতি টের পেয়ে পিক-আপ চালিয়ে দ্রুত স্থান ত্যাগ করে চালকের আসনে থাকা মোঃ মুন্না শেখ ওরফে রানা শেখ। মোটরসাইকেল যোগে পিকআপটিকে প্রায় ৫ কিলোমিটার ধাওয়া করলে একটি বড় গাছের সাথে ধাক্কা লেগে দুর্ঘটনার শিকার হয় গাড়িটি। এসময় মাথা, কোমর ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত পায় চোর মুন্না। পরে তড়িঘড়ি করে গাড়ির দরজা খুলে পালানোর সময় মুন্না শেখ নামের ঐ চোরকে আটক করা হয়।


মুন্নার বাড়ি ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার চতুর ইউপির দুলপুকুরিয়া গ্রামে। আটকের পর তার দেয়া তথ্য অনুযায়ী, কামাল হোসেন ওরফে চোরা শেকু নামে অপর এক আসামীকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ জানায়, চোর চক্রের চিহ্নিত ও সক্রিয় সদস্য চোরা শেকুর (কামল হোসেন) বাড়ি কুমিল্লার মনোহরগঞ্জ থানার নাতের পেটুয়া গ্রামে। বর্তমানে সে রায়পুর পৌরসভার দক্ষিণ দেয়াতেপুরের বাসিন্দা। 


রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ ইয়াছিন ফারুক মজুমদার বলেন, আসামীদের জিজ্ঞাসাবাদে তারা ঘটনার বিষয় স্বীকার করেছে। থানায় একটি নিয়মিত মামলা হয়েছে। আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।


রাকিব হোসাইন, রায়পুর (লক্ষ্মীপুর) প্রতিনিধি

কমেন্ট As:

কমেন্ট (0)