শুক্রবার, ১০ এপ্রিল, ২০২০

সরাসরি পারমাণবিক যুদ্ধের হুঁশিয়ারি ইমরানের

কাশ্মীরকে কেন্দ্র করে এবার সরাসরি পারমাণবিক যুদ্ধের হুঁশিয়ারি দিলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

জি-৭ শীর্ষক বৈঠকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যে সাক্ষাতের পরেও কাশ্মীর ইস্যুতে মধ্যস্থতার সম্ভাবনা ভেস্তে গেছে।

তারপরেই শক্তিধর রাষ্ট্রগুলোকে হুমকি দিলেন তিনি। ইমরান খান বলেন, পারমাণবিক যুদ্ধের ফলাফল হবে ভয়ানক। তা সমগ্র বিশ্বে ছড়িয়ে পড়বে। শক্তিধর রাষ্ট্রগুলোও রেহাই পাবে না।

ভারতের উদ্দেশে হুঁশিয়ারি দিয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যদি এই দ্বন্দ্ব যুদ্ধের আকার নেয় তবে মনে রাখতে হবে, উভয় দেশই পারমাণবিক শক্তিধর। পারমাণবিক যুদ্ধে কারও জয় হবে না।

বরং এটা পুরো বিশ্বে বিস্তার লাভ করবে। শক্তিধর রাষ্ট্রগুলোর যথেষ্ট দায়িত্ব রয়েছে…তারা আমাদের সমর্থন করুক বা না করুক, পাকিস্তান শেষ পর্যন্ত যাবে।’

ইমরান খান আরও বলেন, ‘কাশ্মীর থেকে অনুচ্ছেদ ৩৭০ এবং ৩৫-এ প্রত্যাহার করে ঐতিহাসিক ভুল করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ঔদ্ধত্য দেখিয়ে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুনঃরাখাইনে অ্যাটাক হেলিকপ্টার দিয়ে সেনাবাহিনীর হামলা

প্রচুর সেনা মোতায়েন করে কাশ্মীরকে আত্মসাৎ করেছে ভারত। গান্ধী ও নেহেরু কাশ্মীরকে যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, তা ভেঙেছে ওরা। সমগ্র বিশ্ব ৮০ লাখ কাশ্মীরিদের পাশে থাকুক বা না থাকুক, পাকিস্তান কাশ্মীরের পাশে আছে।’

ইমরান খান বলেন, ক্ষমতায় আসার পর একাধিক বার ভারতের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চেয়েছি। বলেছিলাম, শান্তি স্থাপনে ভারত এক পা এগোলে, চার পা এগোব আমরা।

কিন্তু আলোচনায় বসতেই রাজি হয়নি ভারত। সবকিছুর জন্য শুধু পাকিস্তানকে দায়ী করে গেছে। সন্ত্রাসে মদদ জোগানোর অভিযোগ তুলে কোনো আলোচনাতেই আসেনি তারা।

0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *